চৌদ্দগ্রামে মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় ব্যবসায়ীকে হত্যা, ঘাতক আটক


প্রকাশের সময় : মে ১৬, ২০২৩, ১:০০ অপরাহ্ন / ৪৬৬
চৌদ্দগ্রামে মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় ব্যবসায়ীকে হত্যা, ঘাতক আটক

চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় প্রবাস ফেরত মাদকসেবীর ছুরিকাঘাতে আবদুল মালেক(৫০) নামে এক ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত মাদকসেবী বাহারকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের উনকোট বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আবদুল মালেক ওই গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে এবং মাদকসেবী বাহার একই গ্রামের প্রবাসী কবির আহম্মেদের ছেলে। বৃহস্পতিবার তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন চৌদ্দগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ শুভ রঞ্জন চাকমা।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কয়েকদিন আগে মাদক সেবনের জন্য বাহার নিহত আবদুল মালেকের দোকানের পিছনে খালি জায়গায় প্রবেশের চেষ্টা করে। এসময় মালেক দোকানের পিছনে যেতে বাহারকে বাঁধা দেন। এনিয়ে দুই জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এর জের ধরে বুধবার রাতে দোকান বন্ধ করার সময় আবদুল মালেকের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে বাহার। একপর্যায়ে আবদুল মালেক বাঁচার জন্য শোর চিৎকার করলে বাহার পালিয়ে যায়। পরে বাজারে থাকা লোকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় আবদুল মালেককে উদ্ধার করে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
উনকোট গ্রামের আবুল কাশেম ও খোরশেদ আলম জানান, বাহার একজন খারাপ স্বভাবের লোক। বিদেশ থেকে আসার পর থেকেই দেখছি সে সারাক্ষণ মদ গাঁজায় আসক্ত থাকে। কথায় কথায় লোকজনের সাথে খারাপ আচরণ করে এবং মারধর করে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য রবিউল হোসাইন অপু জানান, কিছু দিন আগে মাদক সেবনে বাধা দেন নিহত আবদুল মালেক। বুধবার রাতে দোকান বন্ধ করার সময় বাহার ছুরি দিয়ে আকস্মিকভাবে আবদুল মালেককে ছুরিকাঘাত করে। সে এলাকার একজন চিহ্নিত মাদকাসেবী।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক রবিউল হোসেন জানান, বুধবার রাতে আবদুল মালেক নামে এক ব্যক্তিকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। তার শরীরে বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাতের গভীর ক্ষত চিহ্ন পাওয়া গেছে।
চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা জানান, পুলিশ হাসপাতাল থেকে রাতে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। বৃহস্পতিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় রাতে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত বাহারকে আটক করা হয়।

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
.#0
#20
#
20