দূর্বৃত্তদের গুলিতে কুসিক কাউন্সিলরসহ নিহত ২


প্রকাশের সময় : মে ১৫, ২০২৩, ৯:৫২ অপরাহ্ন / ৪১৪
দূর্বৃত্তদের গুলিতে কুসিক কাউন্সিলরসহ নিহত ২
স্টাফ রিপোর্টার
দূর্বৃত্তদের গুলিতে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেল এবং আওয়ামী লীগ নেতা হরিপদ সাহা নিহত হয়েছেন। নিহত কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেল (৪৫) পাথুরীয়াপাড়া এলাকার সৈয়দ শাহজাহানের ছেলে ও হরিপদ সাহা (৫৫) নবগ্রাম এলাকার বাসিন্দা। সোহেল ১৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও হরিপদ সাহা সদস্য ছিলেন। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আরও চারজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সোমবার (২২ নভেম্বর) বিকালে নগরীর পাথুরীয়াপাড়া কাউন্সিলর সোহেলের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় আতঙ্ক ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।
মৃত্যুর বিষয়টি রাত সাড়ে ৮টায় নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক মো. মহিউদ্দিন। এসময় তিনি বলেন নিহত কাউন্সিলরের মাথায় ও শরীরে ৯টি গুলি করা হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকালে কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেল নগরীর পাথুরিয়াপাড়া এলাকায় তার ব্যক্তিগত কার্যালয়ে স্থানীয় কয়েকজনকে নিয়ে বসা ছিলেন। এসময় মুখোঁশ পরিহিত ১০-১২ জনের একটি সন্ত্রাসী দল এলোপাতারিভাবে গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে তার কার্যালয়ে প্রবেশ করে। সন্ত্রাসীদের গুলিতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হন।
এসময় খুব কাছে থেকে সন্ত্রাসীরা কাউন্সিলর সোহেলকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়লে তিনি লুটিয়ে পড়েন। ওই কাউন্সিলরের মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে সন্ত্রাসীরা ফাঁকা গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে মোটর সাইকেল ও সিএনজিযোগে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।
স্থানীয়রা গুলিবিদ্ধ কাউন্সিলরসহ আহতদের উদ্ধার করে কুমেক হাসপাতালে ৭ জনকে ভর্তি করে এবং অপর আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যায়।
কুমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অপর আহতরা হলেন- অ্যাডভোকেট সোহেল চৌধুরী, রিজু মিয়া, মো. জুয়েল, মো. রাসেল, মাজেদুল হক বাদল।
নিহত সোহেল ২০১২ ও ২০১৭ সালে তিনি কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হন। দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি প্যানেল মেয়র ছিলেন। ছয় ভাই ও চার বোনের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। তাঁর স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ে আছে।
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
.#0
#20
#
20